তাজা খবর
সোমবার, জানুয়ারি ১৭, ২০২২

“ঝিনুক“

দুটো তিনটে খুবই সাধারন কথা গোড়ায় বলে রাখি।

ঝিনুকে মুক্তা জন্মে, আর মুক্তাকে ইংরেজিতে বলে পার্ল।

পার্ল এন্ড কোম্পানি (ব্রিটিশ ভারতে প্রতিষ্ঠিত আমাদের পিতার প্রতিষ্ঠান, ১৯৭৫ সাল অবধি তার কার্যকলাপ বহাল ছিল। পরে এতদিন তার আর কোনো অস্থিত্ব ছিল না।) ২০১৯ সালে পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করা হয় সৃজণশীল কাজ করবার জন্যে।

২০২০ সালে পার্ল এন্ড কোম্পানি থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় একটা অন লাইন সাহিত্য-সমাচার ভিত্তিক ডিজিটাল লিটল ম্যাগ প্রকাশ করা যেতে পারে।

ঝিনুক দিয়েই মুক্তার সৃষ্টি। আমরা মুক্তা সৃষ্টির সেই ঝিনুককে ধরেই এই ডিজিটাল জগতে বাংলা ভাষায় কিছু মুক্তা সৃষ্টি করতে চাই।

লেখা-ঝোকার এত সুযোগ আর এত জায়গা থাকতে আবার ‘ঝিনুক‘ কেনো?

পপপপপ

error: Content is protected!!